পুজোর প্রাক্কালে তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের জন্য বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

পুজোর প্রাক্কালে তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের জন্য বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদন, পুজো আসতে বাকি আর মাত্র কয়েকদিন। আজ একাদশী, পুজোর প্রাক্কালে তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের কথা ভেবে বড় সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। শুক্রবার সেই সিদ্ধান্তের কথা নিজেই টুইটারে ঘোষণা করলেন। এবার থেকে রাজ্য সরকার কোনও এজেন্সির মাধ্যমে নয়, সরাসরি তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের নিয়োগ করবে। মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, “বাংলা তথ্যপ্রযুক্তি পরিষেবার জন্যই বিখ্যাত। আর তাই তরুণ তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী, যাঁরা আমাদের রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি পরিষেবা উন্নত করার জন্য লাগাতার কাজ করছেন, তাঁদের জন্য সরকারের তরফ থেকে পুজোর উপহার। এবার থেকে আর Webel/WTL/ বেসরকারি এজেন্সির মাধ্যমে নয়, এবার থেকে সরাসরি চুক্তিভিত্তিক কর্মী নিয়োগ করবে রাজ্য সরকার।”

শুধু নিয়োগের ক্ষেত্রেই সুখবর দেওয়া হচ্ছে না এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন যে ওই চুক্তির ভিত্তিতে নিযুক্ত কর্মীরা সমস্ত সরকারি সুযোগসুবিধার অধিকারি হবেন।ট্যুইটারে মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, ‘এবার থেকে এই তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার কর্মীরা বছরে ৩০ দিনের ছুটি ও মেডিক্যালের ১০ দিনের ছুটিও পাবেন। এছাড়া অন্তঃসত্ত্বা মহিলারা সরকারি নিয়ম অনুযায়ীই মাতৃত্বকালীন ছুটি পাবেন। প্রত্যেক কর্মী ৬০ বছর পর্যন্ত কাজ করার সুযোগ পাবেন। এছাড়া অবসরকালীন ৩ লাখ টাকা পাবেন এই কর্মীরা। এমনকি এইসব কর্মীদেরও রাজ্যের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের সুবিধা দেওয়া হবে।’

কয়েক লক্ষ চাকরিজীবী সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে উপকৃত হবেন। রাজ্য সরকার নিয়োগের দায়িত্ব নিজে হাতে তুলে নেওয়ায় সরকারি চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের মতোই সমস্ত সুযোগ সুবিধা পাবেন তারা ৷ এছাড়াও তারা চাকরির স্থায়িত্বের ব্যাপারে খানিকটা নিশ্চিন্ত হবেন। এতদিন পর্যন্ত রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দফতরে চুক্তির ভিত্তিতে যে তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার কর্মীদের যে নেওয়া হত, চুক্তির ভিত্তিতে তাদের নিয়োগের দায়িত্ব বিভিন্ন এজেন্সির উপর দেওয়া থাকত। ওই কর্মীদের নির্বাচন তারাই করতেন। এছাড়া কোনও সরকারি সুযোগ সুবিধাও ওই কর্মীরা এতদিন পেতেন না৷ মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণা রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের কাছে নিঃসন্দেহে এটা পুজোর উপহার হিসেবে পরিগণিত হবে ৷

Leave a Comment