শহীদ সন্তোষ বাবুকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপনে হায়দরাবাদ চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ ব্যাঘ্রশাবকের নাম রাখল ‘সন্তোষ’

শহীদ সন্তোষ বাবুকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপনে হায়দরাবাদ চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ ব্যাঘ্রশাবকের নাম রাখল ‘সন্তোষ’

নিজস্ব প্রতিবেদন, লাদাখে ভারত – চীন সংঘর্ষে যে ২০ জন ভারতীয় সেনা শহিদ হন তাঁদের অন্যতম কর্নেল সন্তোষ বাবু।ভারতীয় সেনার ১৬ বিহার রেজিমেন্টের কম্যান্ডিং অফিসার ছিলেন তিনি। ১৫ জুন পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চিনের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে শহিদ হন ২০ ভারতীয় জওয়ান। সেই বীর শহিদদেরই একজন কর্নেল সন্তোষ বাবু।তেলেঙ্গানার বীর সন্তানকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপনে হায়দরাবাদ চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ ব্যাঘ্রশাবকের নাম রাখল ‘সন্তোষ’।

লালফৌজ নৃশংসতার আশ্রয় নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে হামলা চালায় চীনা সেনা। ভারত খালি হাতে প্রত্যাঘাত করে।লালফৌজের একাধিক সেনা নিহত হয়।যদিও পরে জানা যায়, ভারতের থেকে চিনা সেনার প্রাণহানি বেশি। যে কারণে বেজিং নিহত সেনার সংখ্যা চেপে গিয়েছে।গালওয়ানের এই সংঘাতকে কেন্দ্র করে পূর্ব লাদাখে চরম উত্তেজনা।

চিনকে মোক্ষম জবাব দিতে ভারতের তিন বাহিনীর নজিরবিহীন সেনা মোতায়েন করা হয়েছিল পূর্ব লাদাখে। যে কোনও পরিস্থিতিতে প্রত্যাঘাতের জন্য তৈরি হয়েছিল ভারতীয় বায়ুসেনা। সেইসঙ্গে রাতারাতি চিনা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। আলোচনা সাপেক্ষে ভারত-চিন দু’পক্ষই বিতর্কিত অঞ্চল থেকে সেনা সরিয়ে নিতে সম্মত হয়। যদিও, বিভিন্ন উপগ্রহচিত্রে দেখা গিয়েছে, চিন সৈন্য সরায়নি।

Leave a Comment