৬ ঘন্টা নিজের ঘরেই পরে রইল মৃতদেহ, করোনা সন্দেহে পরিজনরাও দেখতে এল না বৃদ্ধাকে

৬ ঘন্টা নিজের ঘরেই পরে রইল মৃতদেহ, করোনা সন্দেহে পরিজনরাও দেখতে এল না বৃদ্ধাকে

নিজস্ব প্রতিবেদন, করোনা আতঙ্কে জর্জরিত গোটা দেশ। করোনা ভয়ে এবার এক আজব ঘটনা সামনে এল শহর কলকাতায়। বাগবাজারের বৃন্দাবন পাল লেনের এক বাড়িতে ৬ ঘন্টা পরে রইল এক বৃদ্ধার মৃতদেহ। ঘরের পাশেই থাকেন তাঁর দেওর। কিন্তু করোনা ভয়ে কেউ এল না সামনে। দেওরের মতে, “আমি একলা মানুষ কী করব?” মৃত্যকালেও কারোর দেখা নেই, আর মৃত্যুর পরও একই অবস্থা।

বৃদ্ধার নাম ছায়া চট্টোপাধ্যায়, একই থাকতেন বাড়িতে। রবিবার সকাল ৯ টায় মারা যান ছায়া দেবী। সকাল ৯টা থেকে প্রায় ৬ ঘণ্টা মৃতদেহ পরে থাকে সেই ঘরেই। শেষপর্যন্ত প্রতিবেশীরা পুলিশে খবর দিলে তাঁরা এসে মৃতদেহ নিয়ে যায়।

এ প্রসঙ্গে প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন , “বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন ছায়া দেবী। তাঁর পায়ে একটি সমস্যা ছিল। সেটা থেকেই সম্ভবত অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। পাড়ার এক চিকিৎসককে খবর দেওয়া হলেও তিনি দেখতে আসেননি। বাধ্য হয়েই পুলিশে খবর দিতে হয়।”

Leave a Comment