সেলফি তুলতে মত্ত মা, চোখের সামনে ভেসে গেল আড়াই বছরের শিশু

সেলফি তুলতে মত্ত মা, চোখের সামনে ভেসে গেল আড়াই বছরের শিশু

নিজস্ব প্রতিবেদন, বর্তমান যুগে সেলফি যেন নেশায় পরিণত হয়েছে। যদিও প্রথমদিকে এই নেশার খারাপ দিক দেখা যায়নি কারণ এটি স্বস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকারক নয়। তবে পরেরদিকে এটির জন্য অনেক ক্ষতি হতে দেখা গিয়েছে। মানুষ সেলফি তুলতে এতটাই মত্ত থাকে যে আশেপাশের কোনও দুর্ঘটনার আভাস তারা পায়না। আবার একটি প্রাণ কাড়ল এই সেলফির নেশা।

কেরলের সমুদ্রে গতকাল দুপুর আড়াইটে নাগাদ একটি শিশু ভেসে যায়। ঘটনার সময় তার মা তার সাথেই ছিলেন, কিন্তু তিনি ছিলেন সেলফিতে ব্যস্ত। জানা গিয়েছে, আড়াই বছরের শিশুর নাম অধিকৃষ্ণ। দিনকয়েক আগে তার মা অনিতামোলি নিজের ২ সন্তান ও ভাইয়ের ১ ছেলে নিয়ে পালাক্কড় থেকে আলাপুঝায় এক আত্মীয়ের বাড়ি আসেন।

রবিবার তাঁরা সকলে মিলে তিন শিশুকে নিয়ে আলাপুঝা সমুদ্রতীরে ঘুরতে যান। কিন্তু সেসময় সমুদ্র উত্তাল থাকার জন্য পুলিশ তাদের কেন গেট দিয়ে ঢুকতে দেননি। কিন্তু তারা কথা না শুনে স্থানীয় ইএসআই হাসপাতালের পাশ দিয়ে ভেতরে ঢুকে যান।

সমুদ্রে নেমে অনিতামোলি শুরু করেন বাচ্চাদের সঙ্গে সেলফি তোলা, বিনু যান গাড়ি পার্ক করতে। আর হঠাৎ ঢেউ-এর টানে অধিকৃষ্ণ মায়ের হাত থেকে জলে ভেসে যায়। এবং তারা সকলেই সেই পরিস্থিতিতে আটকে পড়েন। এরপর বিনু এসে অনিতামোলি ও অন্যদুটি শিশুকে ইলুদ্ধার করেন। কিন্তু অধিকৃষ্ণকে প্রাণে বাঁচানো গেল না। সূত্রের খবর, সমুদ্রতটে যাওয়ার জন্য জেলা শিশু কল্যাণ কমিটি অনিতামোলি ও বিনুর বিরুদ্ধে মামলা করার দাবি করেছে।

Leave a Comment