দিল্লিতে চোর সন্দেহে গণপিটুনিতে মৃত্যু হল ২৩ বছরের এক যুবকের

দিল্লিতে চোর সন্দেহে গণপিটুনিতে মৃত্যু হল ২৩ বছরের এক যুবকের

নিজস্ব প্রতিবেদন, চোর সন্দেহে রাজধানী দিল্লিতে রাহুল নামে বছর তেইশের এক যুবককে গাছের সঙ্গে বেঁধে পিটিয়ে মেরে ফেলা হল।এই অমানবিক ঘটনা গত শুক্রবার রাজধানী দিল্লিতে ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনায় অভিযুক্ত চারজন গ্রেফতার হয়েছে। তাদের নাম মুস্তাক আহমেদ, সিরাজ আহমেদ, আনিশ ও ইশতিহার।

জানা গিয়েছে, মোবাইল চুরি করার সন্দেহে এই গণপিটুনি করা হয়েছিল।এক প্রত্যক্ষদর্শীর কাছ থেকে ফোন পেয়ে দিল্লির লোহা মান্ডির নরৈনার ১০ ব্লকের এমসিডি পার্কে যায় পুলিশ। সেখান থেকেই ওই যুবকের নিষ্প্রাণ দেহ উদ্ধার করেন আধিকারিকরা।বছর ২৩ -এর ওই যুবকের দেহ গাছের সঙ্গে বাঁধা মেলে। সেসময় যুবকের হাত-পা শক্ত দড়িতে বাঁধা ছিল। সারা শরীরে আঘাতের কালশিটে। অজ্ঞান অবস্থায় পড়েছিল ওই যুবক। সাথে সাথেই হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া হয় যুবককে। কিন্তু তখন তার শরীরে প্রাণ ছিল না। চিকিৎসকরা ওই যুবককে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

প্রাথমিক তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, রাহুলের বিরুদ্ধে আগে থেকেই একটি চুরির অভিযোগ ছিল। ১৫–২০ দিন আগেই জেল থেকে ছাড়া পেয়েছিল সে। ঘটনার দিন, রাহুলের সাঙ্গপাঙ্গরা সিরাজের একটি নতুন মোবাইল ফোন চুরি করে বলে অভিযোগ। ওই পার্কের সামনে সিরাজের ট্রাক রাখা ছিল। সেই ট্রাকেই ফোনটি রেখেছিল সিরাজ। রাহুলের দলবল ফোনটি হাতিয়ে পালায়। কিন্তু, রাহুল ওই চার জনের হাতে ধরা পড়ে যায়। লোকচক্ষুর আড়ালে একটি পার্কে নিয়ে গিয়ে বড় গাছের সঙ্গে মোটা দড়ি দিয়ে আষ্টেপৃষ্টে বাঁধা হয় যুবককে। এরপর লোহার রড দিয়েই চলতে থাকে বেধড়ক মার।

পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থল থেকে একটি দড়ি সাথে সাদা মাফলার উদ্ধার হয়েছে। যুবকের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি ঘটনায় অভিযুক্তরা তাদের দশ স্বীকার করে নিয়েছে। যুবককে এভাবে মারতে ব্যবহৃত রড, লাঠি, পাইপ বাজেয়াপ্তো করেছে দিল্লি পুলিশ।

Leave a Comment